Medical Shop Bangladesh - BIOMEDICALEQUIPMENTLEARNING

Defibrillators

Function of Defibrillators

একটি ডিফিব্রিলিটর রোগীর বুকে নিয়ন্ত্রিত বৈদ্যুতিক শক সরবরাহ করে একটি বিশাল হার্ট অ্যাটাকের অনিয়র্ডিনেটেড হার্ট বিটগুলি বন্ধ করতে ব্যবহার করা হয়।

Read More

ICU ডিপার্টম

ICU ডিপার্টম

## বর্তমান সময়ে ICU ডিপার্টমেন্ট নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। আইসিইউ সিট এর শঙ্কট । আইসিইউ র অভাবে রোগী মারা যাচ্ছে। চলুন দেখি আইসিইউ ডিপার্টমেন্ট কি এর কাজ কি। >> ICU আইসিইউ কি ? আইসিইউ হচ্ছে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট যেখানে একটা রোগীর হার্ট, কিডনি, ফুসফুস, লিভার এবং মস্তিষ্ক এই সকল অঙ্গ যদি কোন কারনে ফেইল হয়ে যাই তাহলেই রোগীকে এই রুমে রাখা হয়। একটু সহজ করে বলি দরেন একজন রোগী তার নিজের ক্ষমতাই শ্বাস নিশ্বাস ত্যাগ করতে পারতেছে না তার মানে তার ফুসফুস ভালো ভাবে কাজ করতেছে না সে জন্য তাকে আইসিইউ র সাপোর্ট দিতে হয় বা আইসিইউ র রুমে রাখতে হয়। এবার চলুন দেখি আইসিইউ তে কি কি দরনের যন্ত্রপাতি থাকে এই গুলার কাজ কি। একটি আইসিইউ রুম মূলত ২০ বেডের বা ২৫ বেডের হয়ে থাকে। প্রতিটা বেড একজন রোগীর জন্য প্রস্তত করা হয়। এবং প্রতিটা বেডের সাথে কিছু যন্ত্রপাতি থাকে তার লিস্ট নিম্নে দেওয়া হল। ১। পেসেন্ট মনিটর ২। ভেন্টিলেটর মেশিন ৩। ৫ ফাংশন বেড ৪। সিরিজ পাম্প ৫। ডিফ্লাইবেলেটর মেশিন নরমালি এই মেশিন গুলাই থাকে। আরও কিছু মেশিন আছে যে গোলা সাপোর্ট হিসাবে কাজ করে কিন্তু এই যন্ত্রপাতি গুলা থাকবেই। এখন আমরা একটু জানার চেষ্টা করবো এইসব মেশিন এর কি কি কাজ। ১। পেসেন্ট মনিটর ঃ মনিটর মানেই বুজতে পারছেন যে এটা একটা ডিসপ্লে যেখানে শরিলেই কিছু ডাটা প্রদর্শন করবে কিছু সেন্সর থাকে যেগুলা শরিলে লাগিয়ে ডাটা প্রদর্শন করা হয়। কি দরনের ডাটা প্রদর্শন করে। ১। হার্ট রেট ২। শরিলের অক্সিজেন রেট ৩। হার্ট এর ফুল ফাংশন ( ইসিজি ) ৪। ব্লাড প্রেশার শরিলের এইসব ডাটা গুলা সেন্সর এর দ্বারা মনিটরে দেখানু হয়। একটা কথা বলে রাখি অনেক সময় নিউজ পাই যে আইসিইউ তে মৃত মানুষ কয়েক দিন রেখে দিয়ে অনেক টাকা বিল করা হয়। যদি এইরকম সন্দেহ হয় আপনি নিজেই মনিটরে ডাটা গুলা দেখালে আপনি বুজতে পারবেন যে রুগী মারা গেছে না কি এখনো বেছে আছে। এখন চলুন দেখি যে ডাটা গুলা দিলাম এই ডাটা গুলার স্ট্যান্ডার্ড মান কি কি একজন সুস্থ মানুষের জন্য। ১। হার্ট রেট = ৬০ – ১০০ এর মধ্যে ২। শরিলে অক্সিজেন রেট = ৯৫% প্লাস ৩। ইসিজি টা আপনারা বুজবেন না একটু কটিন পার্ট ৪। ব্লাড প্রেশার = ১২০/৮০ (120/80 mmHg)। এই সব স্ট্যান্ডার্ড রেট গুলা দেখে আপনি সহজেই বুজতে পারবেন আপনার রোগীর কি অবস্তা। ২। ভেন্টিলেটর কি। ভেন্টিলেটর হচ্ছে এমন একটা মেশিন যার দ্বারা শরিলের শ্বাস নিশ্বাস নিয়ন্ত্রণ করে পর্যাপ্ত পরিমাণ অক্সিজেন এবং আরও কিছু গ্যাস সরবারহ করে। তার মানে বুজতেই পারছেন এই মেশিনটাই রোগীর আসল কাজ সম্পন্ন করে। রোগীর শ্বাস নিশ্বাস কেমন হচ্ছে তার পরিমাণ করে এই মেশিন এর দ্বারা স্ট্যান্ডার্ড একটা প্রেশার দিয়ে অক্সিজেন সরবারহ করা হয়। যদি রোগী নিজে শ্বাস নিশ্বাস না নিতে পারে সেক্ষেত্রে এই মেশিন ই সব কাজ করে থাকে। এই মেশিন টা আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্ট হিসাবে কাজ করে। এই মেশিন নরমালি শ্বাস নিশ্বাস প্রতি মিনিটে কেমন হবে এবং কি রকম প্রেশার দিতে হবে এবং অক্সিজেন কেমন লাগবে এই সব কিছু পরিমাপ করে রোগী কে ওই ভাবে সাপোর্ট দেওয়া হয়। ৩। ৫ ফাংশন বেড কি ? আইসিইউর রোগী রা তো এর মুভ করতে পারে না সে জন্য এমন একটা বেড এর দরকার হয় যা কিনা রোগীকে আপ ডাউন করাতে সক্ষম হয়। এই দরনের বেড গোলা মূলত ইলেক্ট্রিক টাইপ এর হয়ে থাকে। ৪। সিরিজ পাম্প কি ।? এই মেশিন টা অনেক কাজের এটা হচ্ছে রোগীকে ভালো করার জন্য হাই আন্টিভাইটিক লিকুইড ওষুধ সিরিজের দ্বারা একটা সময় অন্তর অন্তর পর্যন্ত ইনজেকশন পুশ করা হয়। আমরা যে বলি এত ওষুধ কে লাগে। ডাক্তার রা অনেক চেষ্টা করে কোন ভাবে কিছু করা যাই কিনা। ৫। ডিফ্লাইবেলেটর মেশিন ? এই মেশিন এর কাজ হচ্ছে পেসেন্ট মনিটরে যখন কিছুই শো করে না মানে শরিলেই সব কিছু অফ হয়ে যাই তখন হাই ভোল্ট সম্পন শক দেওয়া হয়। যাতে সব কিছু ফিরে আসে। আমরা আইসিইউ তে ব্যাবহারত যন্ত্রপাতি গুলার সম্পর্কে জানলাম। এখন মনের ভিতর কিছু প্রস্নের উত্তর খুজি। এই পেন্ডামিক সময়ে কেন আইসিইউ এত গুরুত্বপূর্ণ … ? করোনা ভাইরাস যে কারো হতে পারে। যে কোন বয়েসের হতে পারে। করোনা হবার পর যদি সাথে সাথে চিকিৎসা না নেওয়া হয় তাহলে ভাইরাস টি ফুসফুসে গিয়ে বাসা বানিয়ে সেখানে সে বংশ বিস্তার করতে থাকে। ফুসফুস মূলত একটা জালি হিসাবে কাজ করে আমরা যে শ্বাস নিশ্বাস নেই সেই বাতাস ফুস্ফুসের দ্বারা শরিলে সব জাইগাই ছরিয়ে পরে। করোনা ভাইরাস সেই ফুস্ফুসের জালিতে বংশবিস্তার করে জালি গুলা ব্লক করে ফেলে। তখন একটা রোগী এর স্বাভাবিক ভাবে শ্বাস নিশ্বাস ত্যাগ করতে পারে না। তখন তার দরকার হয় ভেন্টিলেটর মেশিন যা কিনা শ্বাস নিশ্বাস সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ করে। ভেন্টিলেটর যেহেতু আইসিইউ ডিপার্টমেন্ট এ থাকে তাই এর গুরুত্বপূর্ণ অনেক বেশি হয়ে দাঁড়িয়েছে । আইসিইউ তে প্রতিদিন এত খরচ কেন…? কোন কোন সেকশনে খরচ গোলা যাই তা নিম্নে দেওয়া হল। ১। এইখানে নর্মাল ডাক্তার থেকে বড় বড় ডাক্তার রা সবসময় মনিটরিং করতে হয়। ২। গ্যাস দরকার হয় প্রতিদিন। ৩। সবসময় হাই এন্টিভাইটিক ওষুধ লাগে তার খরচ। ৪। যেহেতু অনেক টাকা খরচ করে এই ডিপার্টমেন্ট খোলা হয় সে জন্য খরচ টা ও একটু বেশি দরা হয়। আগের থেকে এখন অনেক পরিবর্তন হয়েছে এই সব যন্ত্রপাতি এবং দাম ও অনেক কমেছে। আমাদের দেশে এখন যে অবস্তা আমাদের আগে থেকে একটু প্লানিং করলে আইসিইউ র অভাবে রোগীরা মারা যেত না। করোনার অনেক রোগী আইসিইউ সাপোর্ট না পেয়ে মারা যাচ্ছে। অনেক উপায়ে আইসিইউ র সাপোর্ট দেওয়া যাই। এখন বাজারে অনেক কম দামে ভেন্টিলেটর আসছে। যেহেতু ভেন্টিলেটর এর সাপোর্ট টা বেশি দরকার করোনার রোগীদের জন্য। এই সব ব্যাপার গুলা আমাদের আগে থেকে প্লানিং করার উচিৎ ছিল।

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read More

heading

Heading

Lorem ipsum dolor sit amet consectetur, adipisicing elit. Laboriosam, voluptatum! Dolor quo, perspiciatis voluptas totam

Read More

Dr.Sabirullah from Sylhet
recently purchased 1 hour ago   This Products Shop Now